তালাক কখন কার্যকর হয়

তালাকের নিয়ম ও কখন কার্যকর হয়?

আমাদের সমাজে স্বামী তার স্ত্রীকে মুখে মুখে একই সাথে পর পর এক, দুই ও তিন তালাক দিয়ে থাকেন। বাংলাদেশের আইনে এই তালাক গ্রহণযোগ্য এবং কার্যকরী নয়। তালাক কার্যকর হয় তালাক দেওয়ার ৯০ দিন পর। তবে তার জন্য তালাকের আইনি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে। তালাক দেওয়ার নিয়মগুলো ঠিক মত অনুসরণ করে তালাক দিতে হবে। তালাকের প্রতিটি ধাপ সঠিকভাবে অতিক্রম করলে ডিবোর্স সম্পন্ন হয়ে যাবে।

তালাকের নিয়ম

প্রথম কথা হচ্ছে, মুখে তালাক দিলে তা কার্যকর হবে না। আপনাকে বাংলাদেশের আইনে তালাকের নিয়ম জানতে হবে। আইনত মৌখিকভাবে তালাক দিলে তা কার্যকর হবে না।

  1. লিখিতভাবে তালাক দিতে হবে। লিখিত তালাক দেওয়ার সময় তালাক দাতা এবং স্বাক্ষীদের স্বাক্ষর লাগবে।
  2. সংশ্লিষ্ট নিকাহ ও তালাক রেজিস্টারের(কাজী অফিস) কাছে তালাক নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রার করতে হবে।
  3. তালাকের এফিডেভিড করতে হয়। যদিও ইহা না করলেও আইনত সমস্যা হবে না।
  4. যাকে তালাক দেওয়া হয়েছে তাকে তালাকের নোটিশ প্রদান করতে হবে। এছাড়াও ইউনিয়ন বা পৌরসভার চেয়ারম্যানকে নোটিশের কপি পাঠাতে হবে।
  5. চেয়ারম্যান উভয় পক্ষেকে সমঝোতা করার জন্য সালিশের ব্যবস্থা করবেন।

সালিশি পরিষদে সমঝোতা না হলে এবং তালাক দাতা ৯০ দিনের মধ্যে তালাক প্রত্যাহার না করলে তবে ৯০ দিন পর তালাক কার্যকর হয়ে যাবে।

তালাক কার্যকরের দিন গণনা

তালাকের নোটিশ প্রদানের পর থেকে ৯০ দিন হিসাব করতে হবে। যেহেতু এই সময় তালাক কার্যকর হয়নি সুতরাং এই তিন মাস স্বামী তার স্ত্রীর খোরপোষ বা ভরনপোষনের ব্যবস্থা করতে হবে। তবে নব্বই দিন পর আর তা বহন করতে হবে না। তবে এখানে উল্লেখ্য তালাক প্রদানের সময় যদি স্ত্রী গর্ভবতী থাকে অথবা ইদ্দতকালীন সময়ের মধ্যে যদি স্ত্রী গর্ভবতী হয় তাহলে তালাক কার্যকরের দিন গণনা হবে সন্তান ভূমিষ্ট হওয়ার পর থেকে। অর্থাৎ সন্তান ভূমিষ্ট হওয়ার ৯০ দিন পর তালাক কার্যকর হবে।

উপরোক্ত শর্তগুলো পূরণ হলে তালাক কার্যকর হবে। তালাক দেওয়ার পূর্বে এবং পরে অভিজ্ঞ উকিলের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। তাহলে আইনি সমস্যায় পড়তে হবে না। আর তালাক কার্যকর হলে ডিবোর্স সার্টিফিকেট নেওয়া যাবে।

12 thoughts on “তালাকের নিয়ম ও কখন কার্যকর হয়?”

  1. Md.aktherojaman

    আস্সালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ আমার একটা প্রশ্ন দয়া করে সমাধান দিলে একটা ফ্যামিলি পাপ থেকে রক্ষা পাবে প্রশ্ন:- আমার এক ছোট ভাই তার স্ত্রীকে কোট থেকে ডিভোর্স দেয় দীর্ঘ দুই মাস পর মেয়ে সমাজের লোক ও চেয়ারম্যান সহ বসে সে তার মোহরানা ও তিন মাসের খোরাক বুঝিয়ে নিয়া ডিভোর্স /তালাক নামায়ল সাইন করে বাচ্চাদের কে বাবার কাছে দিয়ে মেয়ে বাবার বাড়িতে চলে যায় ।এখন মেয়ে ছেলের কাছে আবার আস্তে চায় শরীয়তে বিধান কি?
    এই সম্পর্কে একটা আলোচনা চাই

    1. ওয়ালাইকুমুস সালাম ওয়ারাহমাতুল্লাহ। যদি তালাক কার্যকর(৯০ দিন পার হলে) হয়ে যায় এবং স্বামী-স্ত্রী আবার সংসার করতে চায় তাহলে বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী তাদেরকে পুনরায় বিবাহ করতে হবে। অর্থাৎ কাজী অফিসে স্বাভাবিক বিবাহের মতো মোহরানা ধার্য করে কাবিন রেজিষ্ট্রি করতে হবে। এক্ষেত্রে স্ত্রীকে তৃতীয় পক্ষের সাথে সাময়িক বিবাহের (হিল্লা বিয়ের) কোনো প্রয়োজন নেই। কেননা এরকম হিল্লা বিয়ে বেআইনি ও অবৈধ।
      ১৯৬১ সালের পারিবারিক আইন অনুযায়ী সর্বোচ্চ তিনবার এরকম পুনরায় বিয়ে করা যাবে। তবে এরপর হিল্লা বিয়ে ছাড়া পুনরায় বিবাহের কোনো সুযোগ নেই।

      ইসলামে তালাক দেওয়ার নিয়ম

  2. Mahmadul Hoque Mazumder

    আমি India থেকে বলছি।
    আমার স্ত্রীকে কোনো কারণ বসত কোন চাপে পড়ে সাক্ষী রেখে ১ তালাক দীয়াছি, সে বর্তমানে বাবার বাড়ীতে।
    কিন্তূ তালাকের পরের দীন থেকে স্রীর সাথে যোগাযোগ video cll মাধ্যমে।
    আমি ও সে সংসার করতে চাই , আমি বাড়ি না থাকায় ৩ মাস পার হয়ে গেল।
    কিন্তূ সম্পর্ক এখন ও আছে,
    আমি এখন বাড়ীতে এসেছি।
    এখন আমার করণীয় কি

    1. আইন অনুযায়ী এই তালাক কার্যকর হবে না। ইসলামের দৃষ্টিতে যেহেতু ১ তালাক প্রদান করেছেন সেহেতু স্ত্রীকে ফিরিয়ে নেওয়ার সুযোগ আছে। তবে আপনার উচিত লজ্জা না করে, একজন অভিজ্ঞ আলেম থেকে বিস্তারিত মাসালা জেনে নেওয়া।

  3. মোহাম্মদ

    আসলায়ামুয়ালাইকুম
    তালাক দেয়ার কত দিনের মধ্যে মহরানা আদায়করতে হয় মহরানা একসাথে আদায় করার সামত নায় আইনের কোন সহযোগিতা কি পাওয়া যাবে যানালে খুশি হব।

    1. আসলে মহারানা বিয়ের সময় দিতে হয়। যদি না দেওয়া হয় এবং তালাক প্রদান করা হয় তাহলে 90 দিন পর ইউনিয়ন পরিষদ অথবা পৌরসভা কিংবা কোর্টের মাধ্যমে দেনমোহর নিষ্পত্তি করতে হবে। আপনি একজন অভিজ্ঞ উকিলের পরামর্শ নিন।ধন্যবাদ।

  4. আসসালামুয়ালাইকুম। আমি পরিবারের চাপে পড়ে আমার স্বামী কে ডিভোর্স দিয়েছি কিছুদিন। কিন্তু আমি তার সাথে পুনরায় সংসার করতে চাই। এখন আমার কি করনীয়?

    1. যেহেতু আপনি চাপে পড়ে তালাক দিয়েছেন সেহেতু এখানে ইসলামের মাসালা গত বিষয় রয়েছে। আপনার উচিত কয়েকজন অভিজ্ঞ আলেম এর সাথে আলোচনা করা এবং একজন বিজ্ঞ উকিলের সাহায্য নিয়ে আইনি প্রক্রিয়া অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া। যাতে ধর্মীয় এবং আইনের দৃষ্টিতে আইনি দৃষ্টিকোণ থেকে আইনি দৃষ্টিকোণ থেকে কোন সমস্যা না থাকে।

  5. মুন্না

    বিয়ের কতদিন পর তালাক দিতে পারবে একজন মেয়ে ?

  6. আরাফাত

    আসসালামু আলাইকুম, আমি বিয়ে করেছি ৮মাস হলো তবে ওর বাসায় জানতো না। এখন জানার পর ওর বাবা মা ওকে জোর করে তালাকের কাগজে সই নিছে। সাথে আমার স্ত্রী কে কোথাও আটকে রাখছে। এখন আমি কি করতে পারি।

    1. অভিভাবককে না জানিয়ে বিয়ে করা উচিত হয়নি। এখন পারিবারিকভাবে মিমাংসা না হলে আইনি প্রক্রিয়া অনুসরন করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.